Famous food of Kolkata in Bangla

Famous food of Kolkata
Spread the love

কলকাতার ১০ টি বিখ্যাত খাবার

বাঙালির কথা মাথায় আসলেই আরো একটা জিনিস মাথায় আসে আর সেটা হলো রসোগোল্লা।  রসোগোল্লা যেন বাঙালির পরিচয়। ইতিহাস তো সাক্ষী আছেই , এই রসোগোল্লার প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলো খোদ ব্রিটিশরাও। যাইহোক বাঙালির রান্নাঘরে কিন্তু হরেক রকম রকমারি রান্নার হদিস মেলে। আর প্রবাদেই তো আছে ‘মাছে ভাতে বাঙালি’। এই মাছের উপরেই বাঙালির গোটা বিশ -ত্রিশের উপর রেসিপি আছে। 

আজ আপনাদের ১০ টি  সুস্বাদু বাঙালি খাবার এর কথা বলব , যা একবার খেলে আপনি বারবার খেতে চাইবেন।

  • মাছের ঝোল
  • কলকাতার বিরিয়ানি
  • কষা মাংস
  • লুচির সঙ্গে আলুর তরকারি
  • সুক্তো
  • কাবাব
  • মোচার ঘোন্টো
  • কাতলা কালিয়া
মাছের ঝোল

মাছের ঝোল:  

মাছ , পেঁয়াজ, রসুন, আদা, আলু ইত্যাদি দিয়ে তৈরি হয় এই মাছের ঝোল। খেতে খুবই সুস্বাদু একটি খাবার। শরীরের জন্য উপকারী। যদি আপনি ননভেজ হন তাহলে অবশ্যই আপনার পছন্দের হয়ে উঠতে পারে এই খাবারটি। 

কলকাতার বিরিয়ানি

কলকাতার বিরিয়ানি:  

ঐতিহ্যবাহী খাবারের মধ্যে একটি হচ্ছে কলকাতার বিরিয়ানি। বহুদিনের পুরনো এই রেসিপি স্বগর্বে এখনো কলকাতা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। আলু, চাল , চিকেন, মাটন আর মশলার মিশ্রন এর গবেষণা লব্ধ উপাদেয় রাজকীয় খাবার। যা প্রায় প্রত্যেক রেস্টুরেন্ট এর মেনুতে পেয়ে যাবেন। 

কষা মাংস

কষা মাংস:

বিখ্যাত বাঙালি খাবারের রেসিপিগুলির মধ্যে কষা মাংস  হল একটি সুস্বাদু রেসিপি। মাংস  তরকারি, টমেটো এবং পেঁয়াজের মতো বিভিন্ন সবজি এবং বিভিন্ন মশলার দিয়ে এই কষা মাংস রান্না করা হয় । ঘন বাদামী রঙের এই রেসিপি জিভে জল এনে দেয়।  বিশেষ করে যদি কেউ মাংসপ্রেমী হয় তাহলে তার কাছে এটি অমৃত। এটি গরম  ভাত, লুচি বা পরটার সাথে উপভোগ করতে পারেন। এটি কলকাতার বিখ্যাত খাবারের মধ্যে একটি।

লুচির সঙ্গে আলুর তরকারি

লুচির সঙ্গে আলুর তরকারি:

যদিও এটি উত্তর ভারতে পাওয়া যায়, এবং তারাই বেশি পরিচিত এই খাবারটির সঙ্গে।  একটি পরিপক্ক  টমেটো আর আলু দিয়ে  রান্না করা , এই দুর্দান্ত তরকারিটি সবচেয়ে নিরাপদ কলকাতার খাবার। এই খাবারটি লুচি বা চাপাতির মতো রুটি দিয়ে পরিবেশন করা হয়, এটি সকালের নাস্তার জন্য একটি আদর্শ পুষ্টিকর খাবার।

সুক্তো

সুক্তো:

সুকতো কে সেরা বাঙালি নিরামিষ রেসিপি হিসেবে গণ্য করা হয়।  শুকতো একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার , যা আলু, কুমড়া, বোতল করলা, করলা, এবং আরও অনেক ধরনের সবজি দিয়ে রান্না করা হয়। এর স্বাদ আংশিক তিক্ত( তেতো) এবং আংশিক মিষ্টি স্বাদ।  এই জাদুকরী স্বাদ  এক অনন্য অনুভুতি তৈরি করে। যা ভাত বা  রুটি দিয়ে খাওয়া যেতে পারে।

কাবাব

কাবাব: 

আপনি যদি  মুরগির বা খাসির মাংস খেতে ভালোবাসেন  তাহলে মাটন সিক বা চিকেন কাবাবের এই রেসিপিটা অবশ্যই আপনাকে মুগ্ধ করবে।  গরম ভাত এবং শাকসব্জির সাথে পরিবেশন করা, এটি একটি ব্যতিক্রমী খাবার । 

মোচার ঘোন্টো

মোচার ঘোন্টো:  

এটি কলকাতার অন্যতম বিখ্যাত গৃহস্থালীর খাবার যা প্রতিটি বাঙালি রেস্তোরাঁ এবং বাড়িতে তৈরি হয় ।  কলা ফুল এবং ভাজা নারকেল দিয়ে তৈরি  এই নিরামিষ খাবারটি গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করা হয়। বাংলায় “মোচা” এর অর্থ হল ফুল , যা সঠিকভাবে পরিষ্কার করা হয় । এতে অনেক সময় এবং ধৈর্যের প্রয়োজন হয়। পাপড়ি অপসারণের পরে, ফুলটি চাপ দিয়ে রান্না করা হয় এবং পরে মশলা যোগ করা হয় যাতে একটি মধুর স্বাদ পাওয়া যায়।

কাতলা কালিয়া

কাতলা কালিয়া:

কাতলা কালিয়া একটি ঐতিহ্যবাহী ও উপাদেয় খাবার।যা ৪- ৫ কেজি  ওজনের কাতলা মাছ দিয়ে তৈরি করা হয়। এই খাবারটি বাঙালি পরিবারে বেশ গুরুত্ব বহন করে। পেঁয়াজ, তেজপাতা, আদা এবং রসুনের পেস্ট , মশলা, গরম মসলা এবং ঘি , দই দিয়ে তৈরি করা হয়। রবিবার দুপুরের খাবারের জন্য এটি অন্যতম পছন্দের খাবার।

পায়েস

পায়েস:

এটি সাধারণত মিষ্টি জাতীয় একটি খাবার। দুধ , বাসমতি চাল, চিনি বা গুড় (সাধারণত খেজুরের গুড় দিয়ে তৈরি করলে সুস্বাদু হয়) তেজপাতা ইত্যাদি দিয়ে তৈরি করা হয়। অনুষ্ঠানে শেষপাতে পায়েস না পেলে বাঙালির খাওয়া যেন অসম্পূর্ণ থেকে যায়। 

আলু পোস্ত

আলু পোস্ত:  

বৃষ্টির মধ্যে উদাসী মন চিরাচরিত অভ্যাস পাল্টে ফেলতে চায়। স্বাদ বদলের জন্য তাই আলু পোস্ত সুস্বাদু এবং উপাদেয় খাবার। সাধারনত আলু, পোস্ত, তেল, নুন, মশলা দিয়ে তৈরি করা এই খাবারটি ছোট বড়ো সকলের খুব প্রিয়। লুচি বা গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করা হয়।

এই দশ খাবারের কোন খাবারটি আপনার সবচেয়ে পছন্দের খাবার। আমাদের কমেন্টস করে জানান। 


Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published.