কলকাতার ১০ টি বিখ্যাত রেস্টুরেন্ট

কলকাতার ১০ টি বিখ্যাত রেস্টুরেন্ট
Spread the love

‘তুমিও হেটে দেখো কলকাতা – যাবে কি না যাবে আমার সাথে।’ অনুপম রায়ের গানই যেন কলকাতার সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে চায় নতুন প্রজন্মকে। স্বভাবতই খাদ্যরসিক বাঙালি জাতির কলকাতার সাথে সম্পর্ক বহুদিনের। সেই সম্পর্কের টানেই হোক বা চাহিদার খাতিরেই হোক কলকাতা মানেই ঐতিহ্য। আর সেই ঐতিহ্যের মধ্যে খাবার একটি। কলকাতা এসে শুধু ভিক্টোরিয়া, হাওড়া ব্রীজ দেখলে আপনার ষোলো আনা পূর্ণ হবে না। ষোলো আনা পূর্ণ করতে হলে একবার হলেও গোলবাড়ির কষা মাংস খেতে হবে, ইন্ডিয়ান হোটেলের বিরিয়ানি খেতে হবে কিংবা ….  এত তাড়াহুড়োর কি আছে মশাই , নিচে লিষ্ট তো রইলো । 

গোলবাড়ির কষা মাংস
Source

১) গোলবাড়ির কষা মাংস: 

গোলবাড়ির কষা মাংসের স্বাদ যেন প্রত্যেক বাঙালির ঠোঁটে লেগে আছে। আপনি একবার খেলে কষা মাংসের প্রেমে পড়ে যাবেন। 

ঠিকানা: ২১১ এ পি সি রোড , শ্যামবাজার।

সময় : দুপুর ১২.৩০ থেকে ১ টা পর্যন্ত

দাম : দুটোর জন্য ৪৫০ টাকা

রয়েল ইন্ডিয়া হোটেলের বিরিয়ানি: 
Source

২) রয়েল ইন্ডিয়া হোটেলের বিরিয়ানি: 

যদি আপনি এই বিরিয়ানি একবার চেখে দেখেন তাহলে আপনি কখনোই অন্য কোন হোটেলের বিরিয়ানির সঙ্গে এই ঐতিহ্যবাহী বিরিয়ানির তুলনা করবেন না। চিৎপুরের এই হোটেলে সবসময়ই ভীড়ে  ভর্তি থাকে। রাজকীয় মটন বিরিয়ানি ও মটন কোপ্তা স্বাদে গন্ধে অতুলনীয়। 

ঠিকানা: ১৪৭ রবীন্দ্রনাথ সরনী

সময়: সকাল ১০ টা থেকে ১১টা ৩০ পর্যন্ত

দাম: ৫০০ টাকা

কস্তুরির কচুপাতা চিংড়ি:
Source

৩) কস্তুরির কচুপাতা চিংড়ি:

এই ঐতিহ্যবাহী হোটেলটি কচুপাতা মোড়া চিংড়ি খেলে আপনি অন্য খাবারের স্বাদ ভূলে যাবেন। ঢাকাই হোটেলের এই সুস্বাদু খাবারের লোভে বহু লোক ভীড় করে এই হোটেলে। 

ঠিকানা: মাল্টিপ্লেক্স আউটলেট

সময়: দুপুর থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত।

দাম: দুই প্লেট ৬০০ টাকা

চিত্তরঞ্জনের রসোগোল্লা: 

৪) চিত্তরঞ্জনের রসোগোল্লা: 

উত্তর কলকাতার এই দোকানটি ১৯০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় । হীরালাল ঘোষ হলেন এই দোকানের প্রতিষ্ঠাতা। রসে ডোবানো বিশ্বমানের রসোগাল্লা খেতে হলে আপনাকে এই দোকানে আসতেই হবে। 

ঠিকানা : ৩৪ বি শ্যামবাজার স্টিট

সময় : সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত

দাম: প্রতিটির দাম ১০ টাকা করে

ইন্ডিয়ান কফি হাউজের কফি
Source

৫) ইন্ডিয়ান কফি হাউজের কফি: 

 কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী মান্না দে এর গান কফি হাউস এই কফি হাউজকে কেন্দ্র করেই লেখা। বহু কিংবদন্তি ব্যক্তিত্বের সঙ্গে এই স্থানের যোগাযোগ রয়েছে। 

ঠিকানা : ১৫ বঙ্কিম চ্যাটার্জি স্ট্রীট

সময়: সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত

দাম : দুটো ২০০ টাকা

মিঠাই এর মিষ্টি দই

৬) মিঠাই এর মিষ্টি দই: 

কলকাতার বুকে দই মানেই মিঠাই। প্রতিটি কলকাতার বাঙালির হৃদয় জুড়ে আছে এই ঐতিহ্যবাহী দই। 

ঠিকানা: ৪৮ বি সৈয়দ আমীর আলী এভিনিউ

সময়: সকাল ৭ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত।

দাম : ছোট প্রতি কাপ ১০ টাকা

জ্যোতি বিহারের ঘি মাসালা ধোসা:
Source

৭) জ্যোতি বিহারের ঘি মাসালা ধোসা:

এই রেস্টুরেন্ট টি সাধারন এবং ঐতিহ্যবাহী খাবারের জন্য বিখ্যাত। এখানে ঘি মাসালা ধোসা পাওয়া যায় যার সঙ্গে থাকে নারকেলের চাটনি আর সাম্বর। 

ঠিকানা: ৩এ/১ হো চি মিন সরনী

সময়: সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত

দাম: ২৫০ টাকা দু প্লেট

ব্লু পপ্পির মোমো:
Source

৮) ব্লু পপ্পির মোমো:

এই রেস্টুরেন্ট টি মোমোর জন্য বিখ্যাত। এখানকার সুস্বাদু মোমো এবং ঠুপকা অসাধারণ। এখানে সবধরনের মোমোই পাওয়া যায়। 

ঠিকানা : সিকিম হাউস – কামাক স্ট্রীট

সময় : দুপুর থেকে রাত ৯.৩০ পর্যন্ত

দাম: দু প্লেট ৪৫০ টাকা

দ্যা ওয়াল
Source

৯) দ্যা ওয়াল:  সম্প্রতি এই রেস্টুরেন্ট টি কলকাতাবাসীর মন জয় করেছে। আধুনিকতার সাথে তাল মিলিয়ে এই রেস্টুরেন্ট পনির বাটার এবং পকোড়ার জন্য বিখ্যাত। 

ঠিকানা: ৩ ফেডারেশন স্ট্রীট, গরপার, মেছুয়াবাজার

সময়: সকাল ৭ টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত

মোগাম্বো রেস্টুরেন্ট
Source

১০)মোগাম্বো রেস্টুরেন্ট:  পার্ক স্ট্রিট এর এই রেস্টুরেন্ট টি ফিস ফ্রনটাইন এবং চিকেন স্টিকের জন্য বিখ্যাত। 

ঠিকানা: পার্ক স্ট্রিট

সময়: সকাল ১১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত

ঐতিহ্যবাহী শহর কলকাতার আনাচে কানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে এমন সব অসাধারণ খাবারের দোকান রয়েছে না না ইতিহাস, যা হয়তো আজও অজানা। পরের পার্টে আরও আটটি বিখ্যাত রেস্টুরেন্ট থাকবে আপনাদের জন্য। 


Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published.